Skip to content

কফি দিয়ে রূপচর্চা করার ৭ টি টেকনিক যা প্রতিটি মেয়েরই জানা দরকার

কফি দিয়ে রূপচর্চা

কফি তো প্রতিদিনই খাওয়া হয়, কিন্তু কফি দিয়ে রূপচর্চা করার কথা কি কখনো ভেবেছেন? কফি দিয়ে রূপচর্চা করার ৭ টি অসাধারন টেকনিক দেখতে এই টিউটোরিয়ালটি সম্পূর্ণ পড়ে ফেলুন।

এমন কোনও মেয়ে আছে কি যারা কফি ও কসমেটিক্স এই দুটি জিনিষ পছন্দ করে না? আপনি কি জানেন, আপনার কৌটার তলায় থাকা বাড়তি কফিটুকু দিয়েই আপনি বানিয়ে নিতে পারেন, ত্বক ও চুলের যত্ন নেয়ার অসাধারণ সব উপাদান। ত্বক, চুল ও মাথার ত্বক পরিস্কার করতে কফির ব্যবহার অতুলনীয়।

তাই বাড়তি কফি ফেলে দেওয়ার পরিবর্তে এগুলো দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন বিভিন্ন ধরনের বিউটি রেসিপি। আর এগুলো ব্যবহার করে আপনি হয়ে উঠতে পারেন অসামান্য সুন্দরী। কফি হচ্ছে একটি বহুমুখী সৌন্দর্য চর্চার উপাদান যা দিয়ে বিভিন্ন ধরনের বিউটি রেসিপি তৈরি করা যায়। এটা শুধুমাত্র একটা অসাধারণ স্ক্রাব হিসেবেই নয় বরং রক্ত চলাচল বাড়াতে, সেলুলয়েড এবং স্ট্রেচ মার্ক দূর করতে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে খুব উপকারী। চলুন তাহলে দেখে নেই রূপচর্চায় কফির সাতটি ব্যবহার যা প্রতিটি মেয়েরই জানা দরকার।

মুখের স্ক্রাব হিসেবে কফির ব্যবহার

আপনি হয়তো জানেন কফি একটি অসাধারণ স্ক্রাব যা মুখের মরা কোষ ঝরিয়ে মুখের ত্বকের সবচেয়ে নরম এবং উজ্বল অংশটি বের করে আনতে অত্যন্ত সহায়ক। তাছাড়া কফির তৈরি স্ক্রাব বানানো খুবই সহজ এবং এতে মাত্র কয়েকটি উপাদান লাগে। কফি স্ক্রাব তৈরি করার জন্য আপনার যা যা লাগবে তা হলোঃ

  • এক টেবিল চামচ কফি
  • এক চামচ চিনি
  • এক টেবিল চামচ অলিভ অয়েল বা নারকেল তেল

কিভাবে ব্যবহার করবেন

এই উপাদান গুলো সব একত্রে মেশান এবং ভেজা ত্বকে লাগান। ত্বকের তৈলাক্ত অংশগুলোতে আস্তে আস্তে ঘড়ির কাটার উল্টোদিকে মেসেজ করতে থাকুন যেমন, থুতনি, নাক এবং কপালে। কিছুক্ষণ মেসেজ করার পর হালকা পানির ঝাপটায় ধুয়ে ফেলুন তারপর মোটা তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন।

মুখের মাস্ক হিসেবে কফি

কফি দিয়ে ত্বকের যত্ন নেয়ার জন্য তৈরি করা যায় অসাধারণ মুখের মাস্ক। এটি তৈরি করতে আপনার শুধুমাত্র দুটি উপাদান লাগবে। একটি হচ্ছে মধু আরেকটি হচ্ছে কফি। এর ব্যবহারে আপনার ত্বক উজ্জ্বল এবং গোলাপী হয়ে উঠবে। কফি মাস্ক ব্যবহারে আপনার মূলত দুটি উপকার হবে একটি হচ্ছে আপনার মুখের ব্রণের দাগ এবং ব্রণ ওঠা কমে যাবে এবং আরেকটি হচ্ছে আপনার মুখে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পাবে বলে মুখ ও গালে গোলাপি আভা ধারন করবে। এই মাস্ক তৈরি করতে আপনার লাগবেঃ

  • এক চামচ কফি
  • এক চামচ মধু

কিভাবে ব্যবহার করবেন কফি মাস্ক

প্রথমে কফির সাথে মধু মিশ্রিত করতে হবে। ভালো করে মেশান যাতে এটা পেস্টের মতো হয়ে যায় এবং দরকার হলে আর একটু মধু মিশিয়ে নিন এবার এই মিশ্রণটি আপনার মুখে এবং গলায় ভালো করে লাগান। এমনভাবে লাগান যাতে চোখ এবং চোখের আশেপাশের অংশ ছাড়া সম্পূর্ণ মুখে এবং গলা ঢেকে যায়। ১০-১৫ মিনিট চুপচাপ শুয়ে থাকুন তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

চুলের মাস্ক হিসেবে কফি

যারা চুলের রং গাড় করতে যান এবং চুলে বাড়তি গ্লো নিয়ে আসতে চান, তাঁরা কফির তৈরি চুলের মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন! কিন্তু আপনি যদি আপনার চুলের রং হালকা রাখতে চান, তাহলে মোটেও এই মাস্ক ব্যবহার করবেন না। কারণ এটা প্রাকৃতিকভাবেই চুলের রং বদলে দেয়।

এজন্য আপনার যা যা লাগবে তা হচ্ছে

  • কন্ডিশনার
  • ইন্সট্যান্ট কফি

কিভাবে ব্যবহার করবেন কফির তৈরি চুলের মাস্ক

টেবিল চামচ কন্ডিশনারের সাথে এক অথবা দুই চামচ কফি মেশান এবং চুলের গোড়া ও মাথার ত্বক বাদে পুরো চুলে আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগিয়ে নিন। ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন। তারপর প্রচুর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা আপনার প্রয়োজনমত রং করতে ব্যবহার করতে পারেন। কফির কারণ আপনার চুলে আলাদা উজ্জ্বলতা ও চিকচিকে ভাব চলে আসবে!

বডি স্ক্রাব হিসেবে কফির ব্যবহার

কফির তৈরি বডি স্ক্রাব বানানো খুব সহজ, কিন্তু এর ফলাফল দামী স্ক্রাবের মতই। আপনার এজন্য মাত্র কয়েক টাকা খরচ হবে আর বানানোও বেশ সহজ!

  • ১ টেবিল চামচ কফির গুঁড়া
  • ১ টেবিল চামচ নারকেল তেল

কিভাবে ব্যবহার করবেন কফির তৈরি বডি স্ক্রাব

এই দুটো উপাদান এক করে গোসলের আগে ভেজা ত্বকে লাগান। ধীরে ধীরে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আপনার ত্বকের উপর স্ক্রাব করুন। বিশেষ করে হাতের কনুই, হাঁটু এবং কাঁধে বিশেষ মনোযোগ দিন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং শুকনা তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন। বাড়তি লোশনের প্রয়োজন নেই, কারণ নারকেল তেলই আপনার ত্বককে আর্দ্র করে তুলবে। নরম ও পরিচ্ছন্ন ত্বকের জন্য সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করতে পারেন।

মাথার ত্বকের স্ক্রাব হিসেবে কফির ব্যবহার

কারও চুল যদি অতিরিক্ত পাতলা হয় ও সহজেই উঠে যায় তাহলে চুলের গোড়া মজবুত করার জন্য এবং নতুন চুল গজানোর জন্য ব্যবহার করতে পারেন মাথার ত্বকের কফি স্ক্রাব। এজন্য আপনার লাগবে

  • ১ টেবিল চামচ কফি গুঁড়া
  • ১ টেবিল চামচ চিনি
  • ২ টেবিল চামচ নারকেল তেল

কিভাবে ব্যবহার করবেন কফির তৈরি মাথার ত্বকের স্ক্রাব

সমস্ত উপাদান একসাথে মিশিয়ে শাওয়ার করার আগে মাথার ভেজা ত্বকে লাগান। ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মাথায় ম্যাসেজ করুন, যাতে মাথার ত্বকের মরা কোষ উঠে যায়। তারপর ধুয়ে ফেলুন। তারপর শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করুন এবংভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার ব্যবহার করলেই আপনার মাথার ত্বক থেকে অনাকাঙ্ক্ষিত মরা চামড়া দূর হয়ে যাবে।

ডার্ক সার্কেল দূর করতে কফির ব্যবহার

ডার্ক সার্কেল দূর করতে কফির ব্যবহার অসাধারণ। কারণ এটা চোখের চারপাশের ফোলাভাব কমায় এবং এই অংশের রক্ত চলাচল বাড়িয়ে কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এজন্য আপনার লাগবেঃ

  • ১ চামচ কফি গুঁড়া
  • ১ চামচ এলোভেরা জেল

কিভাবে ব্যবহার করবেন কফির তৈরি ডার্ক সার্কেল প্রতিরোধক

এই দুটি উপাদান একত্রে মিশিয়ে চোখের নিচের ভারী করে লাগান। চোখ বন্ধ করে চুপচাপ বিশ মিনিট শুয়ে থাকুন এবং আরাম করুন কিছুক্ষন পর আলতো হাতে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করুন।

ঠোঁটের স্ক্রাব হিসেবে কফির ব্যবহার

গোলাপি ও নরম ঠোঁটের জন্য ব্যবহার করতে পারেন এই সহজ স্ক্রাবটি! কফির গুঁড়া আপনার ঠোঁট থেকে মরা কোষ দূর করে নরম ত্বক বের করে আনবে এবং মধু আপনার ঠোঁটের ব্যাক্টেরিয়া ও অতিরিক্ত আর্দ্রতা প্রতিরোধ করবে। এজন্য আপনার লাগবেঃ

  • ১ চামচ কফির গুঁড়া
  • ১ চামচ মধু

কিভাবে ব্যবহার করবেন ঠোঁটের জন্য কফি স্ক্রাব

এই দুটি উপাদান একত্রে মিশিয়ে ঠোঁট ভিজিয়ে তাতে লাগান। ধীরে ধীরে আঙ্গুল দিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসেজ করুন। তিন মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। হালকাভাবে মুছে নিয়ে ঘরে তৈরি/ভালো মানের কোনও লিপবাম ব্যবহার করুন।

এই ধরনের আরও ভালো ভালো প্রাকৃতিক উপাদানের তৈরি রেসিপি পেতে নিচের বইটি পড়ে দেখুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: