Skip to content

এমব্রয়ডারি বা হাতের কাজ কেন করবেন

হাতের কাজ বা হ্যান্ড এমব্রয়ডারি হচ্ছে এমন একটি দক্ষতা, যা শেখা খুবই সহজ, এবং অবসর সময়ে অনায়াসে করা যায়। এই কাজটি করে আপনি একদিকে যেমন নতুন নতুন জিনিস তৈরি করতে পারবেন, অপরদিকে পাবেন মানসিক তুষ্টি ও পরিতৃপ্তি।

এটা দিয়ে আপনি অতি সহজেই ঘরের বিভিন্ন শৌখিন জিনিস তৈরি করতে পারবেন, এমনকি এসব জিনিস বিক্রি করে বাড়তি উপার্জনও করতে পারবেন।

আধুনিক জীবনে অন্য অনেক শিল্প উপেক্ষিত হলেও হাতের কাজ বা সূচিকর্ম এমন একটি শিল্প, যা প্রতিটি সমাজ ও দেশেই ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়। এছাড়াও এই দক্ষতা ব্যবহার করে আপনি এমন সব ডিজাইন ও প্যাটার্ন তৈরি করতে পারবেন যা অনেক মানুষের কাছে প্রশংসনীয় ও আদরণীয়।

হাতের কাজ করা খুব বেশী কঠিন কিছু না। প্রয়োজন সঠিক দিক নির্দেশনা ও কায়দা কানুন জানা। কোন ধরনের ডিজাইনে কোন ধরণের সুতার কারুকাজ তৈরি করতে হবে তা জানা থাকলে অতি সহজেই যেকোনো ডিজাইন তৈরি করে ফেলা সম্ভব। এছাড়াও এই শিল্পে সাফল্য পেতে হলে ব্যাপক ধৈর্য ও অনুশীলনও প্রয়োজন। এমব্রয়ডারীর শুরুতে প্রথমে কিছু সাধারণ টেকনিক আয়ত্ত করতে হয়। তারপর ধীরে ধীরে আরও কঠিন টেকনিক আয়ত্ত করতে হয়।

এমব্রয়ডারী বা হাতের কাজের ক্ষেত্রে একটা বিষয় খুব জরুরী। তা হচ্ছে, অধ্যবসায়। কোনও একটি সেলাই সফলভাবে শেখার জন্য যতবার চেষ্টা করা দরকার, করতে হবে। এতে অবশ্যই সময় ও মনযোগ লাগবে। তবে, যত বেশী অনুশীলন করবেন সেলাইয়ের দক্ষতা ও সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম কারুকাজ আপনার কাছে ততই সহজ ও সাবলীল মনে হবে। এর ফলে নতুন নতুন ডিজাইন ও অসাধারণ সব প্যাটার্ন ও কারুকাজ তৈরি করতে পারবেন।

হাতের কাজ করার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, মাত্র কয়েকটি খুব সাধারণ আইটেম দিয়েই কাজ শুরু করা যায়। এতে কোনও বড় অংকের পুঁজি ও মূলধন লাগে না। আলাদা কোনও রুমের প্রয়োজন নেই। বরং, ঘরের এক কোণে অল্প কিছু সরঞ্জাম ও সৃজনশীল ও উদ্ভাবনী কিছু দক্ষতা যেমন, বিভিন্ন ধরণের সেলাই ও ফোঁড় ও কিছু সুন্দর আঁকিবুঁকি জানলেই শুরু করা সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: