Skip to content

কিভাবে আপনার ঘর সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত করবেন

কিভাবে আপনার ঘর সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত করবেন

ঘরে যেহেতু থাকা হচ্ছে, তাই কত তাড়াতাড়ি ঘর ময়লা হয়ে যাচ্ছে, তা নিশ্চয়ই খেয়াল করছেন। ঘরের ভিতর ধুলাবালি জমে থাকলে ঘর আর বাহিরের মধ্যে কি পার্থক্য থাকলো?

এই করোনাকালে ভাইরাস থেকে বাঁচা যেমন জরুরী, তেমনি ঘরের আসবাবপত্র পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখাও অনেক জরুরী। তাই চলুন জেনে নিই, কিভাবে ঘর জীবাণুমুক্ত ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করতে হয়।

সিলিং ও দেয়াল রং করাঃ আপনার ঘরের সিলিং ও দেয়াল কি খুব ময়লা হয়ে গেছে? ঝুল কালিতে একাকার হওয়ার কারণে রং কালচে হয়ে গেছে। তাহলে, সবার আগে আপনি আপনার ঘরটি রং করে নিন।

কিভাবে রং করবেনঃ একটা ঘর রং করতে সবার আগে ঘর থেকে আসবাবপত্রগুলো বের করে নিন। এজন্য বড় বড় আসবাবগুলো প্রথমে খালি করুন ও এগুলো থেকে সব মালপত্র বের করে বড় চাদর দিয়ে মুড়িয়ে অন্য রুমে রেখে দিন ।

এবার আসবাবের চার পায়ার নিচে চারটি চটের টুকরা ঢুকিয়ে দিন। এতে আসবাব খুব সহজেই ঠেলে নিতে পারবেন। এবার আসবাবটি আস্তে আস্তে ঠেলে অন্য রুমে সরিয়ে নিন। সব আসবাব সরানোর পর রুম খালি করে রং করুন।

রং করার কাজে বিভিন্ন ধরনের টুলস পাওয়া যায়।। আপনি চাইলে সেগুলো কিনে এনে ইন্টারনেট থেকে রং করার পদ্ধতি বের করে নিজেই রং করতে পারেন। নিজে রং করতে না চাইলে কোনও রং মিস্ত্রীকে রং করার জন্য ঠিক করুন। সেবাসহ আরও অনেক ধরনের ক্লাসিফায়েড ওয়েবসাইটে আপনি এই কাজের জন্য নির্দিষ্ট মিস্ত্রী খুঁজে পাবেন।

যাই হোক, নিজে রং করা বা মিস্ত্রী দিয়ে রং করার পর আপনার ঘরে বেশ খানিকটা ময়লা জমে যাবে। প্রথমে এই ময়লা ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। এবার এক লিটার পানিতে এক কাপ ভিনেগার ও এক কাপ বেকিং সোডা মিশিয়ে ঘরের মেঝেতে মিশ্রণটি ছিটিয়ে দিন। এবার শলার ঝাড়ু দিয়ে কিছুক্ষন ভালো করে ঘষুন, যাতে অতিরিক্ত রংগুলো উঠে যায়। এবার কোনও নরম কাপড় বা মপ দিয়ে মেঝে মুছে ফেলুন।

পুনরায় একটি বালতি বা বোলে এক লিটার পানি নিন। এবার এই পানিতে এক ক্যাপ (বোতলের মুখ) বা গায়ে যেই পরিমাণ লেখা আছে, সেই পরিমাণ ডেটল বা স্যাভলন মেশান। স্যাভলনের পানিও মেঝেতে ছড়িয়ে দিন এবং মপ দিয়ে টেনে টেন পরিষ্কার করে নিন। কোনও কাপড় দিয়ে মুছতে হলে হাতে অবশ্যই গ্লাভস পড়ে নিবেন।

জানালার গ্রিল ও কাঁচ পরিষ্কার করতে সাদা ভিনেগার মেশানো পানি স্প্রে করে মুছে নিন। ফ্যান ও এসি পরিস্কার করুন। আসবাবপত্র এবার ভালো করে ঝেড়েমুছে স্পিরিট দিয়ে মুছে নিন। তাহলে আসবাবপত্র খুব চকচকে ও পরিচ্ছন্ন হয়ে উঠবে। এবার এই আসবাবগুলো পুনরায় রুমে সেট করুন। বিছানার চাদর, পর্দা, সোফার কভার ইত্যাদি ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। এছাড়াও টেবিলের কাঁচ ও টেবিল ক্লথ পরিস্কার করুন।

সব কিছু পরিষ্কার হয়ে গেলে লেবুর খোসা ভেজানো পানি বা গোলাপ জল ছিটিয়ে দিন। এর সুঘ্রান ও সতেজতা আপনার রুমে একটি ফুরফুরে আমেজ নিয়ে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: