Skip to content

এবার বাসায় বানিয়ে নিন রেস্তরাঁর মতো ফ্রেঞ্চ ফ্রাই রেসিপি

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

আপনার শিশু কি কখনও রেস্তোরার মজাদার ফ্রেঞ্চ ফ্রাই খাওয়ার বায়না ধরেছে? তাহলে, আপনি নিজেই তাঁর জন্য বানিয়ে নিতে পারেন, রেস্তোরার মতো করে মজাদার কুড়মুড়ে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই। তো চলুন, দেরী না করে রেসিপিটি দেখে নিইঃ

উপকরণঃ

  • ৩টি বড় আলু
  • পরিমান মতো লবণ
  • তেল
  • চাট মসলা
  • লাল মরিচের গুঁড়ো
  • ধনেপাতা কুচি

প্রনালীঃ

প্রথমে ৩টি আলু নিয়ে নিতে হবে। আলুর খোসা ছাড়িয়ে ভালোমতো ধুয়ে নিতে হবে। আলুগুলো স্লাইডগুলো মোটা করে কেটে নিতে হবে। আলুগুলো লম্বালম্বি করে কেটে নিতে হবে। এবার কাটার পর ৩-৪ বার পানি বদলে ধুয়ে নিতে হবে। এবার একপাত্রে বেশ ভালো পরিমাণ পানি নিতে হবে এবং ফুল আঁচে তা গরম হওয়ার পর এতে ৩-৪ চামচ লবণ দিতে হবে। এবার গরম পানির মধ্যে কাটা আলুগুলি দিয়ে দিতে হবে।

ফুল আচে আলুগুলিকে একটু ভাপ দিয়ে নিতে হবে দেখা যাবে রং বদলে গেছে।খেয়াল রাখতে হবে আলু যেন সিদ্ধ না হয়ে যায়।পানি গরম হলে চুলা বন্ধ করে দিতে হবে। দেখা যাবে আলুর মধ্যে যে অতিরিক্ত স্টার্চ থাকে তা বের হয়ে যাবে।ব্লাঞ্চ করা হলে আলুগুলিকে ছাকনির মধ্যে নিয়ে নিতে হবে। এবার আলুগুলোকে কিচেন টাওয়েল বা সুতি কাপড় এর উপর ঢেলে দিতে হবে।হাত দিয়ে ছড়িয়ে আলুর পানি শুকিয়ে নিতে হবে। আরেকটি কিচেন টাওয়েল পানি মুছে নিতে হবে যাতে পানি সম্পুর্ণ শুকিয়ে যায় প্রয়োজনে ফ্যান ছেড়ে দিতে হবে।

শুকানোর পর একটি পাত্রে বেশ অনেকখানি তেল নিতে হবে। তেল ফুল আচে গরম করে নিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে তাতে প্রথম অর্ধেক পরিমাণ আলু তেলে দিয়ে নিতে হবে।ফ্রেঞ্চ ফ্রাই ডুবো তেলেই ভাজতে হবে। এবার চুলার আচ মিডিয়ামে রেখে ৩ মিনিট ভাজতে হবে। ভাজার পর আলুকে উঠিয়ে কিচেন টিস্যুর উপর রাখতে হবে।বাকি আলুগুলোকে তেলে দিয়ে ৩ মিনিট ভাজতে হবে। এবার আগের ভাজা আলুর তেল সরানোর জন্য টিস্যু দিয়ে মুছে দিতে হবে এবং অন্য একটি টিস্যুতে রেখে দিতে হবে।

অন্যদিকে বাকি আলুগুলো ৩-৪ মিনিট ম্যাক্সিমাম ভেজে নিয়ে আবারও একইভাবে কিচেন টিস্যুর উপর রেখে আরেকটি টিস্যু দিয়ে ভালোমতো তেল মুছে নিতে হবে। এবার আলুগুলোকে ১০-১৫ মিনিট ঠান্ডা হওয়ার পর তেল মুছা হয়ে গেলে একটি জিপলক প্যাকেট এ আলুগুলো ভরে নিতে হবে। জিপলক প্যাকেট না থাকলে বক্স এ স্টোর করে রাখা যাবে। এবার প্যাকেটটি ফ্রিজে সারারাত বা ৬-৮ ঘন্টা রেখে দিতে হবে। এটি প্রায় ৬ মাস সংরক্ষণ করা যাবে।

আলু ভাজতে হলে এই আলু নিয়ে কড়াই এ ডুবো তেল ভালো করে গরম করে ছেড়ে দিতে হবে। ভাজার সময় চুলার আঁচ ফুল রাখতে হবে। ৩-৪ মিনিট ফুল আঁচে ভেজে উঠিয়ে নিতে হবে। ফ্রেঞ্চফ্রাই হয়ে গেছে নাকি তা বোঝা যাবে যদি তা তেলের উপর ভেসে উঠে।

আলু ভাজা হয়ে গেলে একটি বাটিতে উঠিয়ে রাখতে হবে। এবার এতে সামান্য পরিমাণ চাট মসলা ও লাল মরিচের গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে। স্বাদমতো লবণ ও সামান্য পরিমাণ ধনেপাতা কুচি দিতে হবে। এছাড়া পছন্দমতো যে কোন মসলা মিশিয়ে মজাদার ও সুস্বাদু ফ্রেঞ্চ ফ্রাই পরিবেশন করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: