মাথার ত্বক ও চুলের দূর্গন্ধ দূর করতে বেশ কিছু সমাধান

Natural Herbal Shampoo

চুল ঘেমে যাওয়ার কারণে অথবা বর্ষাকালে অনেক সময় মাথার ত্বকে ও চুলে চিটচিটে আঠালো ভাব বা দুর্গন্ধ দেখা দিতে পারে। এ ধরনের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই মাথায় শ্যাম্পু ব্যবহার করেন। কিন্তু তবুও দুর্গন্ধ একেবারে দূর হয় না।

আজ আমি মাথার ত্বক ও চুলের দূর্গন্ধ দূর করতে বেশ কিছু সহজ সমাধান নিয়ে আলোচনা করবো, যা আপনি অতি সহজেই হাতের নাগালে খুঁজে পাবেন। মাথার ত্বক ও চুলের দুর্গন্ধ দূর করতে নিচের উপাদানগুলো বেশ কাজে লাগে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছেঃ

১। মেহেদী।

২। লেবুর রস।

৩। সবুজ চা।

৪। পেপারমিন্ট বা পুদিনা পাতা।

৫। ড্রাই শ্যাম্পু।

৬। টক দই।

৭। গোলাপজল

৮। অ্যালোভেরা

এছাড়াও আরো অনেক উপায় থাকতে পারে, যেগুলো এখানে উল্লেখ করছি না। এখন আমরা এসব উপাদান কিভাবে ব্যবহার করতে হয়, তা দেখবোঃ

১। মেহেদীঃ মেহেদী একটি সুগন্ধী পাতা। একই সাথে এই পাতার রস আপনার মাথার ত্বক থেকে বিষাক্ত উপাদান বের করে ত্বক সুস্থ রাখতে ও নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। চুলে মেহেদী দিতে হলে পাউডার অথবা কাঁচা মেহেদী বেটে তার সঙ্গে মেথি বাটা, ডিমের সাদা অংশ ও লেবুর রস মিশিয়ে মাথায় লাগাতে পারেন।

২। লেবুর রসঃ লেবুর রস খুব দ্রুত ত্বক পরিষ্কার করে। মাথার ত্বকের ফাংগাল ইনফেকশন, খুশকী বা দুর্গন্ধ দূর করতে লেবুর রস অনেক উপকারী। এক টেবিল চামচ লেবুর রসের সঙ্গে সমপরিমাণ নারকেল বা অলিভ তেল মিশিয়ে এর সঙ্গে দুই তিনটা ভিটামিন ই ক্যাপসুল ও কয়েক ফোঁটা সুগন্ধী এসেনশিয়াল তেল (ঐচ্ছিক) মিশিয়ে গরম করে মাথায় লাগান। একটি তোয়ালে নিয়ে গরম পানিতে ভিজিয়ে চিপে তা মাথায় পেঁচিয়ে রাখুন। এভাবে দশ মিনিট রেখে দিয়ে তোয়ালে খুলে চুল ধুয়ে নিন। দেখবেন দুর্গন্ধ চলে গেছে।

৩। সবুজ চাঃ চা পাতার রস চুল পড়া কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু আপনি কি জানেন, চা পাতার রস আপনার মাথার ত্বক থেকে বাজে দুর্গন্ধ দূর করতেও অত্যন্ত সহায়ক। দুই ব্যাগ সবুজ চা এক কাপ গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। যখন এটা রুমের তাপমাত্রায় চলে আসবে, তখন পুরো মাথা ও ত্বকে স্প্রে করুন। কিছুক্ষণ রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মাথার ত্বকের দুর্গন্ধ চলে যাবে।

৪। পেপারমিন্ট বা পুদিনা পাতাঃ পেপারমিন্টে মেনথল নামের এক ধরনের উপাদান থাকে যা খুবই উদ্দীপক। আপনি নিশ্চয়ই পেপারমিন্ট চা বা চুইংগাম চিবিয়ে খাওয়ার সময় এর ঝাঝালো ঘ্রাণ ও স্বাদ পেয়েছেন। এর ফলে, এটা ত্বকের যে জায়গায় লাগানো হয়, সেখানে রক্ত চলাচল বেড়ে যায়। এটা যে শুধু আপনার মাথার ত্বক ও চুল পরিষ্কার করবে, তাই নয়, এটা আপনার স্ক্যাল্পের রক্ত চলাচল বাড়িয়ে চুলকে সুস্থ, সুন্দর রাখতে ও নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করবে। এজন্য প্রথমেই শুকনো পেপারমিন্টের গুঁড়া বা দুই গুচ্ছ পেপারমিন্ট কুঁচি করে গরম পানিতে মেশান। এবার এটা ছেঁকে নিয়ে রুমের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় নিয়ে আসুন ও তাতে কয়েক ফোঁটা পেপারমিন্ট এসেনশিয়াল তেল মেশান। মিশ্রণটি ভালো করে ঝাকিয়ে তারপর স্প্রে বোতলে ভরে সম্পূর্ণ মাথা ও চুলে স্প্রে করে নিন। তারপর ঘুমিয়ে থাকুন। সকালে উঠে মাথায় দেখবেন আর কোনও দুর্গন্ধ নেই।

৫। ড্রাই শ্যাম্পুঃ বেশ কয়েক ধরনের ড্রাই শ্যাম্পু আছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি সুফল পেতে পারেন। দেশের বাইরে দুই হাজার টাকার নিচে বেশ কয়েক ধরনের ড্রাই শ্যাম্পু পাওয়া যায়। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, Klorane Non-Aerosol Dry Shampoo with Oat Milk, Pravana Fresh Dry Shampoo, Billie Floof Dry Shampoo। ড্রাই শ্যাম্পু মাথার স্ক্যাল্পে স্প্রে করে ব্যবহার করতে হয়। তবে, এর কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও আছে।

৬। টকদইঃ চুলের যত্নে মধু, মেহেদী ও লেবুর রসের সঙ্গে টকদইয়ের ব্যবহার বেশ প্রচলিত। কিন্তু মাথার ত্বকের দুর্গন্ধ দূর করতে আপনি সরাসরি টকদই ও মধুর মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন। এর সঙ্গে চাইলে লেবুও যোগ করা যায়।

৭। গোলাপজলঃ চুলের যত্নে, বিশেষ করে দুর্গন্ধ দূর করতে গোলাপজল বেশ উপকারী। এক কাপ গোলাপ জলে অল্প পরিমাণে এসেনশিয়াল তেল মিশিয়ে তা স্ক্যাল্পে স্প্রে করুন। দুর্গন্ধ চলে যাবে।

৮। অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারীর রসঃ অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারীর রস ত্বক ও চুলের জন্য অত্যন্ত উপকারী। মাথার ত্বকের দুর্গন্ধ দূর করতে এক কাপ অ্যালোভেরার সঙ্গে চায়ের লিকার ও কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল তেল মিশিয়ে মাথার স্ক্যাল্পে স্প্রে করুন। এতে চুলের গোঁড়া যেমন মজবুত হবে, সেই সঙ্গে দুর্গন্ধও অনেক কমে আসবে।

পাঠক, এই আটটি উপাদানের যেকোনো একটি আপনি খুব সহজেই হাতের কাছে খুঁজে পাবেন। তাহলে আর দেরী না করে আজই মাথার ত্বকের দুর্গন্ধ দূর করে সুগন্ধময় করে নিন। ফলাফল হাতেনাতে পেয়ে যাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *