সম্পূর্ণ ১০০% প্রাকৃতিক ভাবে পাতলা চুল ঘন করার উপায়

চুল ঘন করার উপায়

হঠাৎ দেখলেন, চুল পড়ে যাচ্ছে। কি করবেন? চুল পড়ার পিছনে বিভিন্ন কারণ থাকে। এর মধ্যে কিছু কারণ হচ্ছে, বংশগত, হরমোনের ভারসাম্যহীনতা, কোনও রোগ, ক্যামোথেরাপি, খুশকী, পুষ্টিহীনতা, সঠিকভাবে যত্ন না নেওয়া ইত্যাদি। তবে, চুল পড়ে যাওয়ার পিছনে যেই কারণটিই থাকুক না কেন, আপনাকে তা খুঁজে বের করে সঠিকভাবে পরিচর্যা করতে হবে। চলুন জেনে নেই, পাতলা চুল ঘন করার উপায় ও চুল পড়া দূর করতে কি কি করবেনঃ

১। পর্যাপ্ত ঘুমঃ চুল পড়া দূর করতে সবার আগে মাথা ঠান্ডা রাখা জরুরী। আপনাকে কি প্রচুর মাথা খাটাতে ও ব্রেইনের পরিশ্রম করতে হয়। তাহলে প্রতিদিন অবশ্যই ৮-১২ ঘন্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন। প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে যান ও ঘুম থেকে উঠুন। এই রুটিন মেনে চললে দেখবেন, মাথা এমনিতেই ঠান্ডা থাকছে ও মানসিক চাপ অনেক কমে গেছে।

২। নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খানঃ নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খেলে চুল পড়া এমনিতেই অনেক কমে যাবে। বিশেষ করে খাদ্য তালিকায় দুধ ও বাদাম রাখতে চেষ্টা করুন। এই দুটি খাবার চুলের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিনের যোগান দিয়ে চুলকে ঘন স্বাস্থ্যজ্জল ও সুন্দর করে তুলতে সাহায্য করে। আজেবাজে খাবার ও তৈলাক্ত খাবার যথাসম্ভব এড়িয়ে চলুন।

৩। চুলের নিয়মিত যত্ন নিনঃ কথায় আছে, “যতনে রতন মেলে”। এই কথাটি চুলের বেলায়ও সত্য। নিয়ম করে চুলের যত্ন নিলে অনেক অসুন্দর চুলও খুব অল্প সময়ে সুন্দর ও স্বাস্থ্যজ্জল হয়ে উঠে। চুলের যত্ন নিতে নিচে দেয়া প্যাকগুলো ব্যবহার করুন।

৪। শরীরে প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা বজায় রাখুনঃ আর্দ্রতা ত্বকের পাশাপাশি চুলের জন্যও অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। ত্বকের সঠিক রক্ষনাবেক্ষনের জন্য যেমন আর্দ্রতা প্রয়োজন, তেমনি চুলের সঠিক রক্ষনাবেক্ষন ও চুল পড়া দূর করার জন্যও আর্দ্রতা প্রয়োজন। এজন্য চা, কফি কম খেয়ে ফলের রস ও প্রচুর পানি খেতে পারেন। চা, কফি শরীর থেকে বেশী পরিমাণে পানি বের করে দেয়ার জন্য দায়ী। কিন্তু ফলের রস ও পানি শরীরে পানির ঘাটতি পূরণ করে থাকে।

পাতলা চুল ঘন করার উপায়

ভেতর থেকে চুলের যত্ন নেয়ার পাশাপাশি বাহির থেকে পাতলা চুল ঘন করতে বেশ কিছু প্যাক নিয়মিত ব্যবহার করলে উপকার পাবেন।

আমলকী, শিকাকাই ও মেথির প্যাক

আমলকী, শিকাকাই ও মেথি ভালো করে শুকিয়ে গুঁড়া করে কাঁচের বয়ামে রেখে দিন। গোসলের আগে সমপরিমাণ আমলকী, শিকাকাই ও মেথি গুঁড়া একত্রে ভিজিয়ে মিহি করে বেটে নিন। এবার তাতে যুক্ত করুন টকদই, লেবুর রস ও মধু। অল্প পরিমাণে অলিভ তেলও দিতে পারেন। এই প্যাকটি আপনার চুলের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালো করে লাগান। এবার শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে মুড়িয়ে নিন। ২০-৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা, হেনা ও ডিমের প্যাক

অ্যালোভেরা ত্বক ঠাণ্ডা করতে ও ত্বকের সমস্যা দূর করতে প্রায়ই ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এতে আছে শক্তিশালী ত্বক নিরাময়কারী উপাদান যা আপনার মাথার ত্বকের সমস্যা দূর করে চুলকে মজবুত ও শক্তিশালী করে তুলতে সাহায্য করবে। এজন্য প্রথমে অ্যালোভেরা থেকে জেল বের করে নিন ও এর সঙ্গে হেনা পাউডার ও ডিম মেশান। সাথে দিন সামান্য লেবুর রস। এই প্যাক ১৫-২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ভিটামিন ইক্যাস্টর অয়েল

চুল তাড়াতাড়ি ঘন করতে চাইলে সপ্তাহে তিনদিন ক্যাস্টর অয়েলের সাথে নারকেল তেল ও ভিটামিন ই ক্যাপসুল মিশিয়ে লাগাতে পারেন। ভিটামিন ই ও ক্যাস্টর অয়েল চুল ঘন করতে সাহায্য করে। এই প্যাকটি মাথার ত্বকে রাতে লাগিয়ে ১০-১২ ঘন্টা রাখতে হবে। তারপর ভালো কোনও শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ১ মাস নিয়মিত এভাবে যত্ন নিলেই ফলাফল দেখতে পাবেন।

উপসংহারঃ

আশা করি, কিভাবে চুলের যত্ন নিয়ে প্রাকৃতিকভাবে চুল ঘন করার উপায় সম্পর্কে জেনেছেন। এভাবে নিয়মিত যত্ন নিলেই আপনি অতি সহজে আপনার পাতলা ও নিষ্প্রাণ হয়ে যাওয়া চুল ঘন ও সুন্দর করে তুলতে পারবেন। আপনার জানামতে আরো কোনও পদ্ধতি থাকলে নিচের কমেন্টের মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *