কিভাবে ঘরে বসে বানাবেন মজাদার গ্রিল চিকেন ও গ্রিল সস

গ্রিল চিকেন ও গ্রিল সস

মজাদার গ্রিল চিকেন ও গ্রিল সস খেতে তো সবাই-ই ভালোবাসে। রেস্তোরার স্বাদ ঘরে বসে পেতে চাইলে আজই এই রেসিপিটি বানিয়ে সবাইকে নিয়ে স্বাদ পরখ করুন। সাথে বোনাস হিসেবে সসের রেসিপিও দেয়া আছে। ত আজই বানিয়ে নিন গ্রিল চিকেন ও গ্রিল সস।

উপকরণ :

  • আস্ত মুরগী – ১ কেজি
  • পেঁয়াজ বাটা – ৪ টেবিল চামচ
  • টক দই – ৪ টেবিল চামচ
  • আদা বাটা – ১ টেবিল চামচ
  • রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ
  • লাল মরিচের গুঁড়া – ১ টেবিল চামচ
  • ধনিয়ার গুঁড়া – ১ চা চামচ
  • জিড়ার গুঁড়া – ১ চা চামচ
  • গরম মসলার গুঁড়া – ১টেবিল চামচ
  • জরদার রঙ বা হলুদ গুড়া – ১/২ চা চামচ
  • লবণ – ১ চা চামচ
  • সয়া সস – ১ টেবিল চামচ
  • টমেটো কেচাপ/সস – ২ টেবিল চামচ
  • অরেঞ্জ জেলি বা জ্যাম – ১ চা চামচ
  • জলপাই বা আমের আচার – ১ টেবিল চামচ
  • জলপাই বা আমের আচারের তেল – ১ টেবিল চামচ
  • লেবুর রস – ২ টেবিল চামচ পরিমাণ
  • সরিষার তেল – ২ টেবিল চামচ
  • সরিষার তেল – ২ টেবিল চামচ পরিমাণ
  • সয়াবিন তেল – ২ টেবিল চামচ পরিমাণ
  • তরল দুধ – ১/২ কাপ
  • সয়াবিন তেল-১কাপ
  • সাদা ভিনেগার /লেবুর রস – ২ টেবিল চামচ
  • চিনি – ১ টেবিল চামচ পরিমাণ
  • লবণ -১/২ চা চামচ
  • অরেঞ্জ জেলি – ১ চা চামচ
  • আচারের মসলা – ১ টেবিল চামচ
  • টমেটো সস – ৩ টেবিল চামচ

প্রণালী:

প্রথমে ১ কেজি ওজনের ১ টি মুরগী আস্তটাই পরিষ্কার করে এবং ভেতরটাও পরিষ্কার করে নিবেন। মুরগীর গায়ের অতিরিক্ত পানিটা সুতি কাপড় বা টিস্যু দিয়ে মুছে নিবেন। এবার যাতে চিকেনের সব জায়গায় ও ভিতরেও মসলা ঢুকে যায় তাই চিকেনের গায়ে চাকু দিয়ে অনেকগুলো দাগ কেটে নিবেন। এবার চাকুর মাথা দিয়ে মুরগীর বুকে ডানার উভয় পাশে হোল / গর্ত করে মুরগীর ডানার অংশ গর্তে ঢুকিয়ে দিবেন। এবার আবারও টিসু দিয়ে অতিরিক্ত পানি মুছে ফেলবেন।

এবার অন্য এক বাটিতে গ্রিল চিকেন মসলা তৈরী করবেন। এর জন্য দিয়ে দিবেন ৪ টেবিল চামচ পরিমাণ পেঁয়াজ বাটা, ৪ টেবিল চামচ পরিমাণ টক দই, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ আদা বাটা ও ১ টেবিল চামচ পরিমান রসুন বাটা। আরও দিবেন ১ টেবিল চামচ পরিমাণ লাল মরিচের গুঁড়ো, ১ চা চামচ পরিমাণ ধনিয়ার গুঁড়া, ১ চা চামচ পরিমাণ জিড়ার গুঁড়া, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ গরম মসলার গুঁড়া ও ১/৪ চা চামচ পরিমাণ জরদার রঙ / হলুদ গুঁড়া। আবার এতে ১ চা চামচ পরিমাণ লবণ, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ সয়া সস, ২ টেবিল চামচ পরিমাণ টমেটো কেচাপ / সস, ১ চা চামচ পরিমাণ অরেঞ্জ জেলি বা জ্যাম। অরেঞ্জ ফ্লেভার না থাকলে মিক্সড ফ্রুট জ্যামও ব্যবহার করা যাবে। আর দিয়ে দিবেম ১ টেবিল চামচ পরিমাণ জলপাই বা আমের আচার ও ১ টেবিল চামচ পরিমাণ আচারের তেল, ২ টেবিল চামচ পরিমাণ লেবুর রস ও ২ টেবিল চামচ পরিমাণ সরিষার তেল। এবার ভালমতো মাখিয়ে তৈরী করে ফেলুন মসলা। এবার চিকেনের গায়ে সব মসলা মাখিয়ে দিবেন। চিকেনের ভেতরে ও বাইরে ভালমতো সময় নিয়ে মসলা মাখাতে হবে।

এবার ৫-৬ ঘন্টা এভাবে রেখে দিবেন। সময় কম থাকলে কমপক্ষে ২ ঘন্টা রাখতে হবে। ৬ ঘন্টা পর চিকেনের গায়ের অতিরিক্ত মসলা হাল্কা হাতে ঝরিয়ে নিবেন। যাতে পরে চিকেন পুড়ে না যায়। দেখতে ভালো লাগার জন্য একটি সুতো দিয়ে চিকেনের পা দুটো বেধে দিবেন। অবশিষ্ট মসলা পরে ব্যবহারের জন্য রেখে দিবেন। এবার চুলায় মাঝারি তাপে একটি প্যান বসিয়ে দিবেন। এবার এতে দিয়ে দিবেন ২ টেবিল চামচ পরিমাণ সরিষার তেল ও ২ টেবিল চামচ পরিমাণ সয়াবিন তেল। দুটো তেল মিশিয়ে দিয়ে দিবেন। এবার তেলের মধ্যে মসলা মাখানো মুরগী দিয়ে দিবেন। এবার ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখবেন। ৪-৫ মিনিট ঢেকে রাখার পর ঢাকনা খুলে ফেলতে হবে। কেননা, একপাশ সেদ্ধ হয়ে গেছে। ৫ মিনিট পর একটা চামচ দিয়ে চিকেনটা আরেক পাশে দিয়ে দিবেন। এ পর্যায়েও চিকেনটি ৫ মিনিট সেদ্ধ করবেন। এবার চিকেন থেকে বের হওয়া পানির মধ্যে প্রতিটি পাশ ৫ মিনিট সেদ্ধ করে নিবেন। প্রতিবারই ঢাকনা দিয়ে রাখতে হবে। যখন তেল উপরে উঠে আসবে তখন বুঝতে হবে যে ভালমতো সেদ্ধ হয়ে গেছে। ও পানি কমে আসবে।

আগে রেখে দেওয়া চিকেন মসলাটি চিকেনের পুরো গায়ে একটি ব্রাশ দিয়ে ব্রাশ করে দিবেন। এবং চিকেনের চিকেনের গায়ে পোড়া দাগ বানিয়ে নিবেন। এসময় চুলার তাপ বাড়ানো যাবেনা। অল্প মাঝারি তাপেই রাখতে হবে। যখন চিকেনর গায়ে পোড়া দাগ ছিলে আসবে, তখন চিকেন উঠিয়ে প্লেটে রাখতে হবে। চিকেন ভাজার পর যে তেল রয়ে গেছে, তার মধ্যে গায়ে মাখানোর পর রয়ে যাওয়া অবশিষ্ট মসলা দিয়ে দিবেন। এবার মসলাটাকে তেল সহ কষিয়ে নিবেন ২-৩ মিনিট। কষানো হয়ে গেলে এতে দিয়ে দিবেন ২-৩ টেবিল চামচ পরিমাণ পানি। এবার ভালমতো মিশিয়ে রান্না করবেন ৩-৪ মিনিট। ৪ মিনিট পর তেল ভেসে উঠেছে। এবার মসলা চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিবেন।

এবার গ্রিল সস বানানোর জন্য সরু একটা মগ নিয়ে নিবেন। এবার এর মধ্যে দিয়ে দিবেন ১/২ কাপ তরল দুধ। তারপর দিবেন ১ কাপ পরিমাণ সরিষার তেল, ২ টেবিল চামচ পরিমাণ সাদা ভিনেগার বা লেবুর রস, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ চিনি এবং ১/২ চামচ পরিমাণ লবণ। এবার সবগুলো উপকরণ হ্যান্ড ব্লেন্ডার দিয়ে ব্লেন্ড করবেন কিছুক্ষণ সময়। হ্যান্ড ব্লেন্ডার না থাকলে নরমাল ব্লেন্ডারেও করা যাবে। ব্লেন্ডার গরম হয়ে গেলে সসের মিক্সচারটা নরমাল ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করতে হবে। ব্লেড করার পর সসটা ঘন হয়ে গেলে এর মধ্যে ১ চা চামচ পরিমাণ অরেঞ্জ জেলি, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ আচারের মসলা, ৩ টেবিল চামচ পরিমান টমেটো সস এবং ৪ টেবিল চামচ পরিমান ঠান্ডা করে রাখা করে রাখা মুরগীর গায়ে লাগানোর পর রয়ে যাওয়া অবশিষ্ট মসলা দিয়ে দিবেন। বাকি মসলা আপনারা খেতে পারেন। এবার ব্লেন্ডারে সবগুলো উপকরণ ব্লেন্ড করবেন। এবার পরিবেশন করুন মজাদার গ্রিল সস ও গ্রিল চিকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *